Bangal Press
ঢাকাFriday , 24 November 2023
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. ক্যাম্পাস
  6. খেলাধুলা
  7. চাকরির খবর
  8. জাতীয়
  9. তথ্যপ্রযুক্তি
  10. বিনোদন
  11. ভ্রমণ
  12. মতামত
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষা জগৎ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

প্রকাশ্যে একাধিক মাদক সন্ত্রাসী, অশান্ত টেকনাফের অপরাধজগৎ

ডেস্ক রিপোর্ট
November 24, 2023 11:02 am
Link Copied!

আবার অশান্ত হয়ে উঠেছে কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের অপরাধজগৎ। দেশ-বিদেশে যেসব মাদক কারবারিসহ সন্ত্রাসী পলাতক ছিল তাদের মধ্যে অনেককে দেখা যাচ্ছে প্রকাশ্যে। আত্মস্বীকৃত ইয়াবা ব্যবসায়ীরাও জামিনে কারাগার থেকে বেরিয়ে এসে নতুন গ্রুপ তৈরি করছে। এতে রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রিক আন্ডারওয়ার্ল্ডে নতুন মেরূকরণ তৈরি হয়েছে। কয়েকজন কারাগারে বসেই কলকাঠি নাড়ছে। এমন পরিস্থিতিতে আধিপত্য, মাদক নিয়ন্ত্রণ নিয়ে টার্গেট কিলিংয়ের মতো ঘটনা ঘটার আশঙ্কা করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। 
সূত্র জানায়, টেকনাফের হ্নীলার অপরাধজগৎ এখন যারা নিয়ন্ত্রণ করে তাদের মধ্যে অন্যতম পশ্চিম লেদার মৃত আবুল কাশেমের ছেলে নুরুল কবির ও তার বড় ভাই নুরুল হুদা। হত্যা, মাদক, অপহরণ ও মানি লন্ডারিংসহ অন্তত দুই ডজনের অধিক মামলা রয়েছে নুরুল কবিরের বিরুদ্ধে। এইসব মামলার গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি থাকা সত্ত্বেও সারা দেশে প্রকাশ্যে চলাফেরা করাসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।
অভিযোগ রয়েছে, কথিপয় পুলিশ সদস্যের ছত্রছায়ায় থাকায় তাঁকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। শুধু মাদক চোরাচালান মামলাই নয়, টেকনাফ সদর থানার একটি মানি লন্ডারিং মামলারও চার্জশিটভুক্ত পলাতক আসামি তিনি। সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশের কাছে ‘পলাতক’ হলেও পার্শ্ববর্তী মিয়ানমার ও টেকনাফ সীমান্ত সংলগ্ন বিভিন্ন মহলে তার অবাধ ‘যাতায়াত’ ও ‘ওঠাবসা’। টেকনাফের আলীখালী এলাকায় এএনবি ও লেদার এমএইচবি নামের তাঁর মালিকানাধীন দুই ইটভাটায় নুরুল কবিরের নিয়মিত সরব উপস্থিতিও দেখা গেছে। 
প্রায় সময় নুরুল কবিরকে পার্শ্ববর্তী উখিয়া উপজেলার বিভিন্ন স্থানে প্রকাশ্য চলাফেরা করতে দেখা যায়। আলীখালী গ্রামে নব নির্মিত বিলাসবহুল ডুপ্লেক্স বাড়ীতে নিয়মিত থাকেন। সে কথা টেকনাফ থানা পুলিশ জানলেও এখন পর্যন্ত তাকে গ্রেফতারে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করেন নি বলে অভিযোগ সংশ্লিষ্টদের। 
ওয়ারেন্টভুক্ত একজন শীর্ষ মাদক কারবারির সঙ্গে পুলিশের কথিপয় সদস্যের সাথে ‘সখ্য’র বিষয়টি ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা। 
তাদের অভিযোগ, নুরুল কবির একজন মাদক ব্যাবসায়ী ও চোরাচালান আমদানি- রফতানিকারক। তা ছাড়াও তিনি বহুমাত্রিক অপরাধে সম্পৃক্ত। তাই সামাজিকভাবে তার সঙ্গে কারো তেমন কোন সম্পর্ক নেই। তারপরও তিনি টেকনাফসহ পুরো জেলায় দিব্যি ঘুরে বেড়ান কিভাবে এমন প্রশ্ন এলাকাবাসীর। 
স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে তার আরেক ভাই নুরুল হুদা কারাগারে রয়েছে। মূলত হ্নীলার সীমান্ত এলাকাটির নিয়ন্ত্রণ করেন তাঁরা। এক ভাই কারাগারে থাকলেও অপরাধ জগতে তাদের প্রভাব কমেনি। তবে নুরুল হুদা কারাগারে থাকার কারণে নুরুল কবিরের কিছুটা টানাপোড়েন শুরু হয়েছে।
গোয়েন্দা সূত্র বলছে, হ্নীলার সীমান্ত এলাকা নিয়ন্ত্রণ করছে কারাগারে থাকা নুরুল হুদা ও তাঁর ভাই শীর্ষ মাদক সন্ত্রাসী নুরুল কবির। সীমান্ত এলাকার বিভিন্ন খাত থেকে চাঁদা যায় তাদের কাছে। এছাড়া হুন্ডি সিন্ডিকেটের একটি বড় অংশের নিয়ন্ত্রক নুরুল কবির। রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রিক কিলার বাহিনীর সদস্যরা এখন সক্রিয়। তাঁর সঙ্গে সমঝোতা করেই মিয়ানমারে পলাতক শীর্ষ সন্ত্রাসীরা হ্নীলা ভিক্তিক রোহিঙ্গা ক্যাম্প নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে। এ ছাড়া সম্প্রতি আরো একাধিক রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী দীর্ঘদিন পর ক্যাম্পে ফিরেছে। কিছুদিন ধরে সেইসব সন্ত্রাসীদের প্রকাশ্যে দেখা যাচ্ছে। 
অনুসন্ধানে জানা গেছে, হ্নীলার নাফ নদী সীমান্ত পয়েন্টে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে চোরাকারবারি ও হুন্ডি ব্যবসায়ী নুরুল কবিরের নিয়ন্ত্রনাধীন একটি সিন্ডিকেট। একটি আঞ্চলিক দলের সহযোগিতায় সিন্ডিকেটটি নিরাপত্তা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে আনছে মিয়ানমারের সিগারেট, স্বর্ণ ও বিভিন্ন মাদক। দেশ থেকে পাঠাচ্ছে ডেঙ্গু কীট, জন্ম নিয়ন্ত্রণ পিলসহ যৌন উত্তেজক ওষুধ। একাজে সিন্ডিকেটটি রোহিঙ্গা নারীদের ব্যবহার করছে। অবাধে পণ্য আসার কারণে হুন্ডির মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ অর্থ চলে যাচ্ছে পাশ্ববর্তী দেশ মিয়ানমারে। তাদের আটক করতে গেলেও বাধে বিপত্তি। অনেক সময় হামলারও শিকার হতে হয় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চালানো হয় সাম্প্রদায়িক উস্কানি ও মিথ্যা অপপ্রচার।
টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ওসমান গনি বলেন, সন্ত্রাসীদের শেকড় উপড়ে ফেলতে পুলিশ বন্ধপরিকর। নুরুল কবিরের অবস্থান বের করার চেষ্টা চলছে। তাঁকে গ্রেফতারে পুলিশের একাধিক টিম অভিযানে রয়েছে।



শাকিল/সাএ

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।