Bangal Press
ঢাকাTuesday , 6 February 2024
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. ক্যাম্পাস
  6. খেলাধুলা
  7. চাকরির খবর
  8. জাতীয়
  9. তথ্যপ্রযুক্তি
  10. বিনোদন
  11. ভ্রমণ
  12. মতামত
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষা জগৎ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

খাগড়াছড়িতে ব্যাংকের আত্মসাৎকৃত টাকাসহ আসামি গ্রেপ্তার

Link Copied!

খাগড়াছড়িতে একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মাসিক ফি জমা নিয়ে ব্যাংকে জমা না দিয়ে ৯ লাখ ৬৯ হাজার ১৫০ টাকা আত্মসাৎ করে পালিয়ে যায় ব্যাংকের পিয়ন শৌখিন চাকমা (৩০)। পরে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ থানায় মামলা করলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ঢাকা থেকে আত্মসাৎকৃত টাকার মধ্যে ৪ লাখ টাকাসহ তাকে গ্রেপ্তারকরে পুলিশ।
মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা জেলার গেন্ডারিয়া থানা এলাকায় এক বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেপ্তারকরা হয়। গ্রেপ্তারকৃত টাকা আত্মসাৎকারীর নাম শৌখিন চাকমা (৩০)। সে পানছড়ি উপজেলার বড় কলক ধন্য চন্দ্র পাড়া এলাকার রঙ্গলাল চাকমার সন্তান।
পুলিশ জানায়, একটি উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের মাসিক ফি জমাদানের সুবিধার্থে ট্রাস্ট ব্যাংক খাগড়াছড়ি শাখার অফিসারগণ উক্ত স্কুলের একটি সুবিধাজনক কক্ষে বসে ফি সংগ্রহ করেন। এরপর সংগৃহীত টাকা ট্রাস্ট ব্যাংকে জমা প্রদান করে থাকেন। এরই ধারাবাহিকতায় উক্ত ব্যাংকের ম্যানেজারের নির্দেশে ব্যাংকের অফিস পিয়ন শৌখিন চাকমা (৩০) কে শিক্ষার্থীদের বিবিধ ফি বাবদ টাকা সংগ্রহের জন্য প্রেরণ করা হয়। এসময় শৌখিন চাকমা উক্ত স্কুলের শিক্ষার্থীদের ফি বাবদ সর্বমোট ৯ লক্ষ ৬৯ হাজার ১৫০ টাকা সংগ্রহ করে ব্যাংকে জমা না দিয়ে টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে এই বিষয়ে ব্যাংক ম্যানেজার বাদী হয়ে খাগড়াছড়ি সদর থানায় উক্ত আসামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। 
মামলা দায়েরের পর খাগড়াছড়ি জেলার পুলিশ সুপার মুক্তা ধর এর সার্বিক দিক নির্দেশনায় সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌফিকুল আলম এর নেতৃত্বে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ, মামলার আইও সহ অন্যান্য অফিসারদের সমন্বয়ে একটি বিশেষ টিম গঠন করা হয়।
পুলিশ সুপারের তত্ত্বাবধানে ও তদারকিতে বিজ্ঞানভিত্তিক ও আধুনিক তদন্ত কৌশলে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে তদন্ত টিম মামলা রুজুর ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই মূল আসামি শৌখিন চাকমা (৩০) কে গ্রেপ্তারকরে এবং আসামীর নিকট হতে ৪ লাখ টাকা উদ্ধার পূর্বে জব্দ করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উক্ত আসামি শৌখিন চাকমা (৩০) অত্র মামলার দায় স্বীকার করেছে। 
খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মুক্তা ধর বলেন, ‘গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান খাতে সংঘটিত গুরুতর অপরাধের মূল অভিযুক্তকে দ্রুততম সময়ে গ্রেপ্তারএবং আত্মসাৎকৃত অর্থ উদ্ধার করতে পেরে খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ স্বস্তি বোধ করছে। ভবিষ্যতে অনুরূপ যেকোনো অপরাধের ক্ষেত্রে যথাযথ আইন প্রয়োগের মাধ্যমে অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সর্বদাই সচেষ্ট থাকবে।’



শাকিল/সাএ

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।