Bangal Press
ঢাকাSunday , 26 May 2024
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. ক্যাম্পাস
  6. খেলাধুলা
  7. চাকরির খবর
  8. জাতীয়
  9. তথ্যপ্রযুক্তি
  10. বিনোদন
  11. ভ্রমণ
  12. মতামত
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষা জগৎ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

‘স্বর্ণের সন্ধান পাওয়া’ রাণীশংকৈলের সেই ইটভাটায় ১৪৪ ধারা

Link Copied!

সোনার পাবার আশায় ইটভাটায় স্তূপ করা মাটি খুঁড়ে যাচ্ছিলেন নানা বয়সী নারী, পুরুষ আর শিশুরা।
ইটভাটার ঢিবির মাটি খুঁড়লেই মিলছে সোনা—এমন খবরে কোদাল, খুনতি, শাবল, বসিলা নিয়ে দিন-রাত সোনা খুঁজে ইটভাটায় মাটি খুঁড়ছিলেন কয়েক হাজার মানুষ।
এক মাস ধরে এমন হুলুস্থুল কাণ্ড চলছিলো ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলার রাজোর ইউনিয়নের কাতিহার এলাকার ‘আরবি ব্রিকস’ নামের একটি ইটভাটায়।
ইটভাটার মাটির স্তূপে হাজার হাজার লোকজনের ভীড় সামলাতে, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কা ও নিরাপত্তা ঝুঁকি চিন্তা করে সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন।
শনিবার রাত থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সেখানে ১৪৪ ধারা জারি থাকবে। রাতে রানীশংকৈল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রকিবুল হাসান এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশ দেন। 
আরবি ব্রিকস নামের ইটভাটাটির অবস্থান উপজেলার রাজোর ইউনিয়নের কাতিহার এলাকায়। ভাটার মালিক রুহুল আমিন।
বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ‘আরবি ব্রিকস’ নামের একটি ইটভাটায় মাটির স্তূপ খুঁড়ে সোনা পাওয়া যাচ্ছে—এমন খবরে স্থানীয় লোকজনসহ আশপাশের বিভিন্ন জায়গার অসংখ্য মানুষ বেশ কিছুদিন ধরে খুনতি, কোদাল, বাসিলা দিয়ে মাটি খুঁড়ে সোনার সন্ধান করছে। এতে যেকোনো সময় ঘটনাস্থলে মারামারি,খুন, জখমসহ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কা রয়েছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ইটভাটা এলাকা ও আশপাশে ফৌজদারী কার্যবিধি ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।
স্থানীয় বাসিন্দা জয়নাল, মহন্ত, আশামণি বলেন, ভাটার মাটির স্তূপে সোনা পেয়েছেন কয়েকজন। কিন্তু কে পেয়েছেন এ কথা স্বীকার করছেন না কেউ। তাদের দাবি-‘অনেকেই পেয়েছেন, তাই আমরাও খুঁড়ে দেখছি।’
জানা যায়, গুজব উঠেছে আরবিবি ইটভাটার মাটির স্তূপ থেকে সোনার জিনিস পাওয়া গেছে। এরপর থেকেই সাধারণ মানুষ দিনরাত ওই মাটির স্তূপ খনন করতে শুরু করেছে। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ মাটি খুঁড়তে আসছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রকিবুল হাসান জানান, মাস খানেক ধরে মানুষ ইটভাটায় উপস্থিত হয়ে মাটি খুঁড়ছেন। সেখানে মাটি খোঁড়ায় কোদাল, খন্তিসহ সরঞ্জাম নিয়ে দলবদ্ধ হচ্ছেন। সে কারণে আইনশৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত ইটভাটার আশপাশ এলাকা ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। শনিবার রাতে ঘটনাস্থলে গিয়ে সকল লোকজনকে ওই স্থান থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এখন সেখানে জনমানবশূন্য। পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে। পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
এ ছাড়াও ইটভাটা কর্তৃপক্ষকে দ্রুত ওইসব মাটি অপসারণের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
 



শাকিল/সাএ

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।