Bangal Press
ঢাকাSunday , 26 May 2024
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. ক্যাম্পাস
  6. খেলাধুলা
  7. চাকরির খবর
  8. জাতীয়
  9. তথ্যপ্রযুক্তি
  10. বিনোদন
  11. ভ্রমণ
  12. মতামত
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষা জগৎ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পাইকগাছায় ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধি

Link Copied!

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে রোববার সকাল থেকে খুলনার পাইকগাছায় গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি সহ ঝড়ো হাওয়া প্রবাহিত হচ্ছে। নদ-নদীতে স্বাভাবিকের থেকে ২ ফুট পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। দুপুরের পর থেকে ঝড়ো হাওয়া আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে।
উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১০নং মহা বিপদ সংকেত দেখানো হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জনসাধারণকে নিরাপদ স্থানে আসার জন্য মাইকিং করা হচ্ছে এবং ১০টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ১০৮টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ইতোমধ্যে বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে লোকজন আসা শুরু করেছে। উপজেলার ৬টি পোল্ডারের ১১টি স্থানে ওয়াপদার বেড়িবাঁধ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।
এর মধ্যে লস্করের আলমতলা ও গড়ইখালীর খুদখালী ওয়াপদার বেড়িবাঁধ মারাত্মক ঝুঁকিতে রয়েছে। যেকোনো সময় বাঁধ ভেঙ্গে প্লাবিত হতে পারে পাইকগাছা-কয়রার ৬টি ইউনিয়ন। ক্ষতি হবে ফসলি জমি, মৎস্য ঘের, ঘরবাড়ি সহ কয়েক কোটি টাকার সম্পদ। রবিবার দুপুরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন গড়ইখালীর খুদখালী ওয়াপদার ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ পরিদর্শনে আসলে তাৎক্ষণিক এলাকার শত শত বিক্ষুব্ধ জনতা তাদের কে অবরুদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে পাইকগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ওবাইদুর রহমানের নেতৃত্বে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
এদিকে সকালে উপজেলার বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ এলাকা পরিদর্শন করেছেন সংসদ সদস্য মো. রশীদুজ্জামান, উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ার ইকবাল মন্টু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহেরা নাজনীন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ইমরুল কায়েস। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ইমরুল কায়েস জানান,আমাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণে শুকনো খাবার মজুদ আছে যা প্রায় ১০হাজার লোকজন কে ৫/৬দিন খাওয়ানো সম্ভব হবে। এছাড়া চাহিদা অনুযায়ী আরো খাদ্য পাওয়া যাবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহেরা নাজনীন জানান, ইতোমধ্যে আমাদের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলায় সিপিপি, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, উত্তরণ, নব লোকসহ কয়েকটি বেসরকারি সংস্থা মাঠে কাজ করছে। লস্করের আলমতলা ও গড়ইখালীর খুদখালীতে ঝুঁকিপূর্ণ বাঁধ মেরামতের কাজ চলমান রয়েছে। আর আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে লোকজন আসা শুরু হয়েছে। সর্বোপরি তিনি সকলকে নিরাপদ আশ্রয়কেন্দ্রে আসার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।



সালাউদ্দিন/সাএ

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।