Bangal Press
ঢাকাSunday , 9 June 2024
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. ক্যাম্পাস
  6. খেলাধুলা
  7. চাকরির খবর
  8. জাতীয়
  9. তথ্যপ্রযুক্তি
  10. বিনোদন
  11. ভ্রমণ
  12. মতামত
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষা জগৎ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মাদ্রাসার চালে বল আনতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে প্রাণ গেল স্কুলছাত্রের

Link Copied!

মাদ্রাসার টিনের চাল থেকে বল আনতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে তানজিল হোসেন (০৭) নামের এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। রোববার (৯ জুন) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে পাবনা সাঁথিয়া উপজেলার পুন্ডুরিয়া দাখিল মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত তানজিল উপজেলার করমজা ইউনিয়নের পুন্ডুরিয়া গ্রামের মিন্টু প্রামাণিকের ছেলে।
এর আগেও গত শুক্রবার (০৭ জুন) বিল্লাল হোসেন (০৯) নামের এক শিশু একই মাদ্রাসার টিনের চালেই বল আনতে গিয়ে বিদ্যুৎপৃষ্টে আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আহত বিল্লাল বাওইটোলা গ্রামে তার নানা বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল। সে সাঁথিয়া উপজেলার সোনাতলা গ্রামের রওমের ফকিরের ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রতিদিনের মত পুন্ডুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তানজিল বন্ধুদের সাথে খেলছিল। খেলার একপর্যায়ে ফুটবলটি পুন্ডুরিয়া দাখিল মাদ্রাসার টিনের চালের উপরে আটকে গেলে তানজিল গ্রিল বেয়ে উপরে থেকে সেটি আনতে যায়। এসময় টিনের চালে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে আটকে যায় সে। তার কিছুক্ষণ পর মাটিতে ছিটকে পরে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
এ ঘটনায় স্থানীয়রা ক্ষিপ্ত হয়ে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে পুন্ডুরিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপারিন্টেন্ডেন্ট এর বাড়ি ঘেরাও করেন।
স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, গত শুক্রবার পুন্ডুরিয়া দাখিল মাদ্রাসার একই টিনের চালে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে গুরুতর আহত হয়েছে আরেক শিশু বিল্লাল। এরপরেও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ কেন বিদ্যুৎ সংযোগটি মেরামত করেনি। ঘটনার সঠিক তদন্তের দাবি জানান এলাকাবাসী।
বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) মাহমুদুল করিম রাজু জানান, ‘বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হওয়া ছেলেটিকে হাসপাতালে আনার পর আমাদের কর্তব্যরত চিকিৎসক বুঝতে পারে সে ঘটনাস্থলেই মারা গেছে।’
আহত বিল্লালের বাবা রওমের ফকির জানান, ‘আমার ছেলে পুন্ডুরিয়া মাদ্রাসার চালে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে চাল থেকে পরে গিয়ে মেরুদণ্ডের হাড় ভেঙ্গে গেছে। আমার ছেলেকে পাবনা জেনারেল  হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে, তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।’
পুন্ডুরিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপারিন্টেন্ডেন্ট আলহাজ আব্দুল ওয়াদুদ জানান, ‘গত শুক্রবার একটি ছেলে বিদ্যুৎপৃষ্ট হওয়ার পর আমরা টেস্টার মেস্টার দিয়ে চেক করে দেখছিলাম তো। কোথাও তো সমস্যা পাই নাই। আজ কীভাবে যে কি হলো ঠিক বুঝে উঠতে পারছি না। আর এমনিতেই তো ছেলেরা চালে উঠে লাফালাফি করে। এতে দুর্ঘটনা হতেই পারে।’
 



শাকিল/সাএ

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।