Bangal Press
ঢাকাFriday , 21 June 2024
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. ক্যাম্পাস
  6. খেলাধুলা
  7. চাকরির খবর
  8. জাতীয়
  9. তথ্যপ্রযুক্তি
  10. বিনোদন
  11. ভ্রমণ
  12. মতামত
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষা জগৎ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ইউএনওর নির্দেশে পল্লীবিদ্যুৎ কর্মচারীকে বেঁধে রাখল আনসার

Link Copied!

বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার কথা বলায় ইউএনওর নির্দেশে পল্লীবিদ্যুৎ কর্মচারীকে বাঁশের খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রাখার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার (২০ জুন) জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদের আনসার ব্যারাকে।
ভুক্তভোগী মো. ইকবাল হোসেন দেওয়ানগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের লাইন টেকনিশিয়ান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
পল্লীবিদ্যুতের লাইন টেকনিশিয়ান মো. ইকবাল হোসেন জানান, দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরের আবাসিক কোয়াটার বেলী-১, হাসনা হেনা-১ ও আনসার ব্যারাকের বিদ্যুৎ বিল গত দুই বছর ধরে বকেয়া রয়েছে। পল্লীবিদ্যুতের দেওয়ানগঞ্জ জোনাল অফিসের এজিএম মো. শেখ ফরিদের নির্দেশে তিনি ও লাইন টু লেবেল-১ এর টেকনিশিয়ান শাহ জামাল ইয়াছিন বকেয়া বিলের জন্য দুপুরে উপজেলা চত্বরে যান। সেখানে খোঁজাখুঁজি করে দায়িত্বশীল কাউকে না পেয়ে পল্লীবিদ্যুৎ এর এজিএম’কে বিষয়টি জানালে তিনি বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার নির্দেন দেন।
পরে মো. ইকবাল হোসেন ও শাহ জামাল ইয়াছিন বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার বিষয়টি আনসার সদস্যদের জানান।  এ সময় আনসার সদস্যরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে মোবাইল ফোনে বিষয়টি অবহিত করেন।
ভুক্তভোগী পল্লীবিদ্যুৎ লাইন টেকনিশিয়ান মো. ইকবাল হোসেন আরও বলেন, ‘উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশেই আমি ও লাইনম্যান শাহজামাল ইয়াছিন আনসার ব্যারাকে যাই। সেখানে কর্তব্যরত আনসারদের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার কথা বললে তারা ইউএনও স্যারকে ফোন দেন। পরে ইউএনও স্যার আমার সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলেন। তিনি শুধু জানতে চান যে আমি কার নির্দেশে ওখানে গিয়েছি। এর উত্তর দেয়ার পরেই আনসার সদস্যদের মোবাইলটি দিয়ে দেই। এরপরই ব্যারাকের আনসার সদস্যরা আমাকে বারান্দার খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রাখেন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট পর তারা আমাকে ছেড়ে দেয়।’
দেওয়ানগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ জোনাল অফিসের এজিএম মো. শেখ ফরিদ বলেন, ‘বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। আমাদের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ জামালপুরের জেলা প্রশাসকের সঙ্গে কথা বলেছে। তিনি  বিষয়টি সমঝোতার জন্য রোববার পর্যন্ত সময় নিয়েছেন। তাই আমরা আপাতত কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করছি না।’
এ বিষয়ে জানতে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ জাহিদ হাসান প্রিন্স মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তারা রিসিভ করেননি। 
এইদিকে সমাঝতা না হওয়ায় ভোর ৪:৪০ পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিহীন ছিল দেওয়ানগঞ্জ উপজেলাবাসী। যা সাধারণ জনগনের মাঝে বিরুপ প্রতিকৃয়া সৃষ্টি করে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।